Menu

অন্য পুজো | A different Puja

Illustration by Tridib Ghosh

Onno Pujo by Anirban Dutta

Illustration by Tridib Ghosh

রাত ৯টা, কুমোরটুলি পার্কের ঠাকুর দেখে আহিরিটোলার দিকে এগোব, হঠাত মনে হল কে যেন আমার পাঞ্জাবির খুট ধরে টানছে | ঘাড় ঘুরিয়ে দেখি বছর দশ কি বারোর একটি বাচ্চা ছেলে ! রোগা, শীর্ণ, মাথাভরা কোকড়ানো চুল, আর অদ্ভুত ব্যাপার, চোখে একটা বড় চশমা !
“কাকু, ও কাকু .. একটা কাঠের পুতুল নাও না … নিজের হাতে বানানো … সারাদিনে মাত্র তিনটেই বিক্রি করতে পেরেছি … আর এক-দুটো বিক্রি করতে পারলেই, বাড়ি চলে যাব …আর পারছি না, খুব খিদে পেয়েছে |”
বুঝতেই পারলাম, শেখানো বুলি .. তবু কেন জানি না, ছেলেটার সঙ্গে দুটো কথা বলার ইচ্ছে জাগলো মনে |
“নাম কি ?”
“ফটিক”
“এই যে বলছিস নিজে হাতে বানানো, কে শেখালো তোকে কাঠের ওপর খোদাই করা ?”
“ওই যে গো, আমাদের NGO দিদিমনি আর শ্যামল মাস্টার ”
“বাবা ! থাকিস কোথায় ?” ফটিক নিরুত্তর …
“তা পড়াশোনা না করে সারাদিন পুতুল বিক্রি করিস ? বাপ মা কি করে ?”
“বাবা নেই … জানি না .. মা কাজ করে ”
আমি কিঞ্চিত বোকার মতোই জিজ্ঞেস করে ফেললাম “কাজ ! কি কাজ ?”
” আমার মা কে খুব সুন্দর দেখতে গো … সাজলে, লিপিস্টিক লাগালে, একদম বিদ্যা বালনের মত লাগে | তুমি এই বি-কে-পাল এভিনিউ ধরে গঙ্গাযমুনা বাড়ির নিচে গিয়ে আমার মা-এর নাম বললেই, যে কেউ মা-এর ঘর দেখিয়ে দেবে দোতলায় .. সন্ধেবেলায় মাকে পাবে ঘরে | ”
একটু থেমে ফটিক বলল ” ওই যা, মার নামটাই তো বলা হলো না তোমায় .. মার নাম দূর্গা | ”

এক দূর্গা মন্ডপ থেকে বেরিয়ে এসে আরেক দুর্গার ঠিকানা পেলাম …
এই দূর্গা দের শারদীয়ার আনন্দ নেই, বোধন নেই, বরণ নেই … আছে শুধু বিসর্জন !

This Post Has 2 Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Logo Header Menu